চলচ্চিত্রের সুদিন ফেরাতে সমন্বিত প্রচেষ্টার তাগিদ

99

পিবি ডেস্কঃ করোনার প্রকোপে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হচ্ছে সবাইকে। মার্চের শেষের দিকে বন্ধ হয়ে যায় সিনেমা হলগুলো। দীর্ঘদিন হল বন্ধ থাকায় বিপাকে শিল্পী, কলাকুশলীসহ সিনেমা হলের মালিক ও কর্মচারীরা।

সম্প্রতি শুটিং, ডাবিং, এডিটিংসহ চলচ্চিত্রের সব কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সিনেমা হল বন্ধ থাকায় বিপাকে চলচ্চিত্রগুলো। এরই মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সিনেমা হল খোলার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতি। তবে হল খোলা নিয়ে বিভক্তি রয়েছে হল মালিক ও প্রযোজকদের মধ্যে। চলচ্চিত্র অঙ্গনের এমন দুরবস্থার মধ্যে সমন্বয়ের আহ্বান সংশ্লিষ্ট মহলের।

মধুমিতা হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘সিনেমা হল খোলার আগে কোন ছবি মুক্তি দেওয়া হবে, তা আগে নিার্ধরণ প্রয়োজন। কারণ, পুরোনো সিনেমা দিয়ে আমরা হল খুলব না। দীর্ঘদিন আমরা লোকসানে আছি। করোনার এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মানতে গিয়ে আরো খরচ বাড়বে। যে কারণে বড় বাজেটের ভালো মানের ছবি না পেলে সিনেমা হল খোলা সম্ভব নয়। তা ছাড়া খোলার পর একের পর এক ছবি প্রয়োজন হবে। আমাদের দেশে এত ছবি আছে বলে আমার মনে হয় না।’

নওশাদের বক্তব্যে দ্বিমত পোষণ করেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম। তিনি বলেন, ‘নতুন বড় বাজেটের ছবি এখন মুক্তি দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ, হঠাৎ করে নতুন ছবি মুক্তি দিলে সেটা ব্যবসাসফল হবে না। তাই আমি নওশাদ ভাইয়ের কথায় একমত হতে পারলাম না। আমি মনে করি, পুরোনো ছবি দিয়ে আগে সিনেমা হল খুলতে হবে, দর্শক জেনে যাবে যে সিনেমা খুলেছে, সেখানে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে। তখন পরিকল্পনা করে নতুন ছবি মুক্তি দিতে হবে। তা ছাড়া করোনার আগে যে ছবি মুক্তি দেওয়া হয়েছে, সেই ছবিগুলো দর্শক এখনো দেখেনি। তারা যদি কিছুদিন ছবিগুলো হলে চালাতে না পারে, তবে লগ্নিকৃত অর্থ ফেরত আসবে না।’

পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন সমন্বিত প্রচেষ্টার ওপর জোর দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘বর্তমানে আমাদের চলচ্চিত্রের যে অবস্থা, তাতে আমাদের সমন্বয় করে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে হবে। চলচ্চিত্র নিয়ে যেকোনো আলোচনা করতে চাইলে, পক্ষে-বিপক্ষে মত আসবেই। সবাই বসে সমন্বয় করে যৌথ সিদ্ধান্ত নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে, অন্যথায় আমরা আরো পিছিয়ে পড়ব। চলচ্চিত্রের সুদিন ফেরাতে এর বিকল্প নেই।’

পিবি/ব

Facebook Comments